১৯ মে, ২০১৫

Blogger দিয়ে পরিপূর্ণ ব্লগ তৈরী (সর্বশেষ পর্ব - ১০)

Blogger দিয়ে পরিপূর্ণ ব্লগ তৈরী (সর্বশেষ পর্ব - ১০)
4/ 5 stars - "Blogger দিয়ে পরিপূর্ণ ব্লগ তৈরী (সর্বশেষ পর্ব - ১০)" আপনারা হয়তো জানেন যে, কারও ব্যক্তিগত কিংবা ব্যবসায়িক কাজের জন্য ব্লগ তৈরী করার সবচেয়ে সহজ প্লাটফর্ম হচ্ছে Google এর Blogger. খুব সহজে এব...
-
Create-Blogger-Account
আপনারা হয়তো জানেন যে, কারও ব্যক্তিগত কিংবা ব্যবসায়িক কাজের জন্য ব্লগ তৈরী করার সবচেয়ে সহজ প্লাটফর্ম হচ্ছে Google এর Blogger. খুব সহজে এবং কোন প্রকার ওয়েব ডেভেলপমেন্ট জ্ঞান ছাড়াই ব্লগার দিয়ে সহজে ব্লগ তৈরী করা যায়। তাছাড়া এটি Google কোম্পানির হওয়াতে কোন প্রকার সংকোচ ছাড়াই ব্লগিং চালিয়ে যেতে পারবেন।

প্রায় এক মাস হয়েছে আমরা এই ব্লগটি চালু করেছি। আপাতত আমাদের অন্য স্টাফরা বিভিন্ন কাজে ব্যস্ত থাকায় আমি নিজে একাই ব্লগিং চালিয়ে যাচ্ছি। তাই সময়ের অভাবে সব ধরনের পোষ্ট করা সম্ভব হচ্ছে না। যদিও এ পোষ্টটি ব্লগিং শুরুরদিকে করা উচিত ছিল কিন্তু আমরা ভেবেছিলাম হয়তো এগুলি সহজ ব্যাপার। তাই শুরুতে এ গুলি বাদ দিয়ে দিয়েছিলাম। পরবর্তীতে অনেকের অনুরোধে ব্লগ তৈরী নিয়ে পোষ্ট করতে বাধ্য হলাম। আমাদের এই পোষ্টটি ধারাবহিকভাবে চলবে। প্রত্যেকটি পোষ্ট করার পর নিচের টেবিলে লিংক করে দেয়া হবে।
ব্লগার বিবিধ অংশ পরিচিতিঃ Blogger দিয়ে পরিপূর্ণ ব্লগ তৈরী (শেষ পর্ব - ১০) শুরু করছি। আমাদের আজকের পোষ্ট হচ্ছে ব্লগার ড্যাশবোর্ডের বিভিন্ন অংশ নিয়ে আলোচনা। আমাদের আজকেই পোষ্টটির মাধ্যমে ব্লগার দিয়ে পরিপূর্ণ ব্লগ তৈরী টিউটোরিয়াল পর্ব শেষ হবে।
Blogger Dashboard
  • Pages - এই অংশটি ঠিক Posts অপশনের মত। এখানে সাধারনত ব্লগ সম্পর্কে বিভিন্ন সাফাই গাওয়া হয়। যেমন ধরুন-আপনার ব্লগ সম্পর্কে, আপনার নিজের সম্পর্কে, ব্লগের পলিসি, কনটাক্ট পেজ ইত্যাদি টাইপের বিভিন্ন পেজ তৈরী করা হয়।
  • Comments - আপনার ব্লগের কোন্ পোষ্টে কতটি কমেন্ট করা হলো, কোন কমেন্ট ডিলিট করা, কমেন্ট অনুমোদন দেওয়া এবং স্প্যাম কমেন্ট ডিলিট করার জন্য ব্যবহৃত হয়। এখানে ক্লিক করলে আপনি বিষয়গুলি সহজে বুঝতে পারবেন।
  • Google+ এটি ব্যবহার করে আপনার ব্লগার প্রোফাইল-কে Google+ Profile এর সাথে Connect করতে পারবেন। এর ফলে আপনার পোষ্টগুলি সহজে আপনার Google+ Profile এ শেয়ার করতে পারবেন। আবার ইচ্ছে করলে Disconnect করতেও পারবেন। 
  • Earnings - আপনার ব্লগটি যদি ভালমানের হয় এবং প্রচুর পরিমানে ভিজিটর থাকে, তাহলে Google Adsense Approved করে আপনার ব্লগে Advertisement ব্যবহার করে টাকা উপার্জন করতে পারবেন। তবে এটি এখনো বাংলা ভাষা সাপোর্ট করছে না। Adsense Approved করতে হলে আপনার ব্লগটি অবশ্যই English হতে হবে। এ নিয়ে আমরা পরবর্তীতে বিস্তারিত আলোচনা করবো।  
  • Campaigns - এটি মূলত Google AdWords এর একটি অংশ। এটির ব্যবহার করার জন্য আপনার অনেক অভীজ্ঞতা থাকতে হবে। সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজ করার ক্ষেত্রে এটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। 
পরিশেষঃ আমার বিশ্বাস আপনি যদি এই ১০ টি পোষ্ট ভালভাবে পড়েন তাহলে ব্লগ সম্পর্কে পরিপূর্ণ বেসিক ধারনা নিতে পারবেন। কারণ আমরা প্রত্যেকটি বিষয় যে ভাবে বিশ্লেষন করে দেখিয়েছি তাতে করে কারও বুঝতে কোন  সমস্যা হওয়ার কথা নয়। তারপরও যদি কোন অংশে বুঝতে সমস্যা হয়, তাহলে আমাদের-কে কমেন্ট করে জানাতে পারেন। আর ব্লগ সম্পর্কে যদি পরিপূর্ণ ধারনা নিতে চান কিংবা আপনি একজন ভালমানের ব্লগ ডিজাইনার হতে চান, তাহলে আমাদের সাথে থাকুন। আমরা আপনাদের সবসময় ব্লগিং সম্পর্কে নিত্য নতুন কিছু উপহার দেব।
Subcribe to our all updates

and Share on
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট

1 টি মন্তব্য: Post Yours! Read Comment Policy ▼
লক্ষ্য করুনঃ
পোষ্টের সাথে সম্পৃক্ত নয় এমন কোন কমেন্ট করা যাবে না। কোন কারণ ব্যতীত আপনার ব্লগের লিংক শেয়ার করতে যাবেন না। সবসময় গঠনমূলক মন্তব্য প্রদানের চেষ্টা করবেন। আমরা সবার মতামত সমানভাবে মূল্যায়ন করি এবং যথাসময়ে প্রতি উত্তর দেয়ার চেষ্টা করি।

 
Subscribe for all Updates

Subscribe Now

কপিরাইট © 2015- প্রযুক্তি ডট কম ™, সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত

Powered by: