২২ অক্টোবর, ২০১৭

কেন আপনার ওয়েবসাইট Google Search Result Page এ Show হচ্ছে না?

কেন আপনার ওয়েবসাইট Google Search Result Page এ Show হচ্ছে না?
4/ 5 stars - "কেন আপনার ওয়েবসাইট Google Search Result Page এ Show হচ্ছে না?" সাধারণত সার্চ ইঞ্জিনে কোন কিছু খোঁজার ক্ষেত্রে কেউ যদি তার কাঙ্খিত Keyword এর বিষয়বস্তু প্রথম পেজে না পায়, তাহলে সে দ্বিতীয় পেজে না খোঁজে ...
-
সাধারণত সার্চ ইঞ্জিনে কোন কিছু খোঁজার ক্ষেত্রে কেউ যদি তার কাঙ্খিত Keyword এর বিষয়বস্তু প্রথম পেজে না পায়, তাহলে সে দ্বিতীয় পেজে না খোঁজে নতুন কোন Keyword ব্যবহার করে পুনরায় সার্চ করে। এ ক্ষেত্রে আপনার ওয়েবসাইটের কোন একটি পোষ্ট যদি সার্চকারীর Keyword অনুসারে সার্চ রেজাল্টের প্রথম পাতায় চলে আসে, তাহলে অনায়াসে সে আপনার পোষ্টটি ভিজিট করবে। এ ভাবে আপনার ওয়েবসাইটের প্রত্যেকটি পোষ্ট সার্চ ইঞ্জিনের প্রথম পাতায় নিয়ে আসতে পারলে আপনার ওয়েবসাইটের ট্রাফিক নিয়ে কোন চিন্তা করতে হবে না।
কেন আপনার ওয়েবসাইট Google Search Result Page এ Show হচ্ছে না?
আজকের পোষ্টটি শুধুমাত্র Google Search Engine কে কেন্দ্র করে। কারণ শুধুমাত্র গুগল সার্চ ইঞ্জিনকে টার্গেট করে ব্লগ পোষ্টগুলি সার্চ রেজাল্টের প্রথম পাতায় অবস্থান করাতে পারলে সফলতা অনায়াসে হাতে ধরা দেবে। তাছাড়া বর্তমানে গুগল সার্চ ইঞ্জিনের জনপ্রিয়তা সবার শীর্ষে থাকার কারনে অন্য সার্চ ইঞ্জিনগুলি টার্গেট না করলে পর্যাপ্ত ভিজিটর পাওয়ার ক্ষেত্রে কোন সমস্যা হবে না।

কেন ব্লগ পোষ্ট সার্চ রেজাল্টে প্রদর্শন হচ্ছে না?

নিম্নলিখিত কারনে আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের পোষ্ট সার্চ রেজাল্টে আসবে না। এই সবগুলি বিষয় নিয়ে আমরা বিস্তারিত আলোচনা করব। তবে তার আগে সংক্ষেপে টপিকগুলি দেখে নেই।
  • গুগল সার্চ ইঞ্জিনে ব্লগ Index হয়নি।
  • আপনার ব্লগে No Index ট্যাগ যুক্ত করা।
  • আপনার ব্লগটি সার্চ ইঞ্জিন Crawler এর জন্য উপযোগী নয়।
  • ব্লগের আর্টিকেল এর Competitor বেশী।
  • গুগল সার্চ ইঞ্জিন আপনার ব্লগটি Removed করে দিয়েছে।

গুগল সার্চ ইঞ্জিনে ব্লগ Index হয়নিঃ

সাধারণত আপনার ব্লগটি বা ব্লগ পোষ্টগুলি নতুন হয়ে থাকলে সার্চ ইঞ্জিনে Index হতে সময় নেওয়ার কারণ গুগল সার্চ রেজাল্টে প্রদর্শণ হতে কিছুটা সময় নেবে। যেকোন নতুন কোম্পানি শুরু করার পর যেমনি মানুষের কাছে পরিচিত হতে সময় লাগে তেমনি নতুন ব্লগ হলে সার্চ ইঞ্জিনে Index হতে সময় লাগে। আপনার ব্লগটি একদম নতুন হয়ে থাকলে সাধারণ নিয়মে পোষ্ট সার্চ রেজাল্টে আসতে ৪-৫ সপ্তাহ সময় নেবে।

সার্চ ইঞ্জিনে পোষ্ট দ্রুত Index করানোর জন্য আপনার ব্লগটি Google Webmaster Tools এ সাবমিট করতে পারেন। গুগল ওয়েবমাষ্টার টুলস এ সাবমিট করলে গুগল আপনার ব্লগের সকল পোষ্টগুলি অটোমেটিক্যালি দ্রুত ইনডেক্স করে সার্চ রেজাল্টে নিয়ে আসবে। তবে আপনি যদি Google Webmaster Tools এ সাইট সাবমিট করতে না চান, সেক্ষেত্রে এই লিংক থেকে আপনার সকলে পোষ্টগুলি একটি একটি করে সাবমিট করতে পারেন। এ উপায়ে কোন ধরনের একাউন্ট করার প্রয়োজন হবে না। তবে এ কাজটি ম্যানুয়ালি না করে Webmaster Tools এ একটি একাউন্ট করে সাইট সাবমিট করার পক্ষে আমি আপনাকে পরামর্শ দেব।

ব্লগে No Index ট্যাগ যুক্ত করাঃ

No Index ট্যাগের মাধ্যমে একটি ব্লগের বিভিন্ন পোষ্ট এমনকি সম্পূর্ণ ব্লগ সার্চ ইঞ্জিনের রেজাল্টে প্রদর্শন না করানোর জন্য নির্দেশ প্রদান করা যায়। এই ক্ষেত্রে আপনার ব্লগটির ডিজাইনার যদি ভূলবশত ব্লগের ভীতরে No Index ট্যাগ যুক্ত করে রাখেন, সেক্ষেত্রে হাজার চেষ্টা করেও পোষ্ট সার্চ ইঞ্জিনে Index করতে পারবেন না। সব চেষ্টা করার পরও আপনার ব্লগটি Index না হলে ব্লগে No Index ট্যাগটি আছে কি না ভালভাবে যাচাই করে নিবেন। গুগল ব্লগের Themes এর ভীতরে এই ট্যাগটি যুক্ত না করে সরাসরি ড্যাশবোর্ড হতে যুক্ত করে নেওয়া যায়। এ ব্যাপারে আমাদের ব্লগে বিস্তারিত পোষ্ট রয়েছে। আপনি ইচ্ছে করলে পোষ্টটি দেখে নিতে পারেন।

ব্লগ সার্চ ইঞ্জিন Crawler এর জন্য উপযোগী নয়ঃ

কেউ যখন তার ব্লগের নতুন কোন পোষ্ট পাবলিশ করে তখন সার্চ ইঞ্জিনের স্পাইডার কনটেন্ট ক্রল করার জন্য পোষ্টের প্রত্যেকটি আর্টিকেল ভিজিট করে। গুগল ক্রলার এর মাধ্যমে ব্লগের কনটেন্ট সম্পর্কে ধারনা নেয়, কিন্তু এ ধারনা মানুষ যেভাবে নেয় সেই তুলনায় একটু ভিন্ন ধরনের হয়। সাধারণত সার্চ ইঞ্জিন ক্রলার বা রোবট পোষ্টের টাইটেল, Meta Descriptions, Keywords সহ আরো বিভিন্ন বিষয়ে ক্রল করে পোষ্ট সম্পর্কে মূল্যায়ন করে। এ ক্ষেত্রে ব্লগের কনটেন্ট এর মান ভাল হয়ে থাকলে সার্চ ইঞ্জিন বট আপনার পোষ্টটিকে গুরুত্ব দিয়ে সার্চ রেজাল্টে প্রদর্শণ করবে। সে জন্য আপনার ব্লগের কনটেন্ট Crawler এর উপযোগী করার ব্লগের কনটেন্ট উপর গুরুত্ব দিতে হবে, অর্থাৎ ভালমানের আর্টিকেল শেয়ার করতে হবে।

ব্লগের আর্টিকেল এর Competitor বেশীঃ

আপনি যে ধরনের বিষয় বা আর্টিকেল নিয়ে ব্লগিং করছেন সেই ধরনের কনটেন্ট ইতোপূর্বে খুব বেশী পরিমানে শেয়ার করা হয়ে থাকলে আপনার ব্লগের কনটেন্ট সার্চ রেজাল্টে আনার ক্ষেত্রে খুব কঠিন হয়ে যাবে। বর্তমানে ব্লগিং এর প্রসার এত বেশী পরিমানে বৃদ্ধি পেয়েছে যে, সবাই এখন ব্যক্তিগত ব্লগ তৈরি করে অনলাইনে বিভিন্ন বিষয়ে ব্লগিং করছে। এই জন্য অনলাইনে যে ধরনের আর্টিকেল কম শেয়ার করা হচ্ছে সেই ধরনের আর্টিকেল নিয়ে ব্লগিং করতে পারলে Competitor কমিয়ে সার্চ ইঞ্জিন হতে সহজে ট্রাফিক বৃদ্ধি করা সম্ভব হবে। তবে সেটা সম্ভব না হলে আপনি যে বিষয়ে ভাল জ্ঞান রাখেন সে বিষয়টি অন্যদের চাইতে ভালভাবে উপস্থাপন করার চেষ্টা করবেন। এ কাজটি করতে পারলে অন্যদের সাথে কম্পিটিশনের পাল্লা দিয়ে ট্রাফিক বৃদ্ধি করতে সক্ষম হবেন।

ব্লগটি গুগল সার্চ ইঞ্জিন Removed করে দিয়েছেঃ

গুগল এর নিয়ম না মেনে কনটেন্ট পাবলিশ করা হলে গুগল স্থায়ীভাবে আর্টিকেল Index করা বন্ধ করে দেয়। এ ক্ষেত্রে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে যে, আপনি যে বিষয় নিয়ে ব্লগিং করছেন সেটি গুগল Quality Guidelines অনুসারে হচ্ছে কি না। গুগল Quality Guidelines না মেনে ব্লগিং করলে Google আপনার সাইটটিকে Index হওয়া থেকে স্থায়ীভাবে বিরত থাকবে। নিম্নলিখত কারনে গুগল একটি ব্লগকে সার্চ ইঞ্জিন হতে স্থায়ীভাবে Removed করে দিতে পারে।
  • Deindexed: তখন গুগল আপনার ব্লগটি সার্চ ইঞ্জিন হতে Complete ভাবে রিমুভ করার ফলে ধরে নেবে এই সাইটটি স্থায়ীভাবে ব্যান হয়েগেছে।
  • Penalized: যখন আপনার ব্লগ ও ব্লগ পোষ্ট বিদ্যমান থাকবে কিন্তু গুগল সার্চ ইঞ্জিনে খুজে পাওয়া যাবে না বা সার্চ ইঞ্জিন হতে কেউ ভিজিট করবে না, তখন Google অ্যালগরিদম থেকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপনার ব্লগটি স্থায়ীভাবে Removed হয়ে যাবে।
  • Sandboxed: আপনার ব্লগে পর্যাপ্ত ট্রাফিক ছিল কিন্তু হঠাৎ করে কল্পাতিতভাবে ভিজিটর হ্রাস পাওয়ার কারনে গুগল ধরে নিবে আপনার সাইটটি বন্ধ হয়েগেছে। এ সংক্রান্ত কারনেও গুগল আপনার ব্লগটি Remove করে দিতে পারে।
উপরোক্ত বিষয় ছাড়াও আরো কিছু কারনে গুগল আপনার ব্লগটিকে স্থায়ীভাবে ব্যান করে দিতে পারে। এ ক্ষেত্রে আপনার ব্লগটি Google Webmaster Tools সাবটি করা থাকলে গুগল আপনার ব্লগটি ব্যান করার পূর্বে কিছু পরামর্শ দিতে পারে। আপনি যদি সেগুলি সংশোধন করতে পারেন, তবে তারা আপনার ব্লগটি ব্যান না করে পুনরায় সার্চ ইঞ্জিনে নিয়ে আসতে পারে। এ ক্ষেত্রে ব্লগ Webmaster Tools এ সাবমিট করা না থাকলে এ ধরনের কোন নোটিফিকেশন বা অবহিত হওয়ার সুযোগ থাকে না।

কিভাবে Google Search Result এ ব্লগ Show করাবেন?

  • সঠিক SEO: সার্চ ইঞ্জিনের পাতায় ব্লগ শো করানো কিংবা সার্চ ইঞ্জিন হতে ব্লগে ট্রাফিক বৃদ্ধি করার ক্ষেত্রে এসইও এর বিকল্প কিছুই নেই। আপনার ব্লগে সকল বিষয়গুলি যত ভালভাবে এসইও করে শেয়ার করতে পারবেন সার্চ ইঞ্জিন আপনার ব্লগটি তত বেশী গুরুত্ব দেবে। এসইও এর ক্ষেত্রে ব্লগে Keywords বাছাই, অন-পেজ অপটিমাইজ ও অফ-পেইজ অপটিমাইজেশন এর বিষয়ে বেশী গুরুত্ব দিতে হবে।
  • যথাস্থানে Keywords ব্যবহারঃ সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনের ক্ষেত্রে Keywords ব্যবহার খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। কারণ ইন্টারনেটে যত কিছু খুজা হয়ে থাকে তার সবটাই Keywords ব্যবহার করে সার্চ করা হয়। পোষ্টের ভীতরে গুরুত্বপূর্ণ Keywords গুলি যথাস্থানে ব্যবহার করতে পারলে সার্চ ইঞ্জিনের পাতায় পোস্ট শো করার সম্ভাবনা তৈরি হয়।
  • Meta Tags ব্যবহারঃ সাধারণত বাহ্যিক দৃষ্টিতে Meta Tag দেখা যায় না বিধায় অধিকাংশ ব্লগাররা বিষয়টা গুরুত্ব দেন না। অথচ সার্চ ইঞ্জিন ব্লগের টাইটেল এর পরেই Meta Tag গুলিকে গুরুত্ব দিয়ে থাকে। এ বিষয়ে আমাদের পূর্বের অনেক পোষ্ট রয়েছে। বিস্তারিত জানার জন্য পোষ্টগুলি দেখতে পারেন।
  • কম Competitions যুক্ত বিষয় বাছাইঃ বর্তমানে অনলাইন বিশাল বড় একটা মার্কেট ও জ্ঞানের ভান্ডার। এখানে যে বিষয়ে সার্চ দিবেন সে বিষয় হাতের নাগালে পেয়ে যাবেন। এ ক্ষেত্রে যে বিষয়গুলি নিয়ে ইতোপূর্বে কম লেখা হচ্ছে সে বিষয়ে ব্লগিং করতে পারলে আপনার Competitions কমে যাবে। ব্লগিং শুরুর পূর্বে এ কাজটি করতে পারলে আপনার জন্য সুবিধা হবে।
  • Backlinks বৃদ্ধিঃ সার্চ রেজাল্টে নিজের ভালো অবস্থান তৈরির ক্ষেত্রে Backlinks খুবই গুরুত্বপূর্ণ কাজ করে। আপনার ব্লগটিকে যদি Search Engine এর কাছে গুরুত্বপূর্ণ এবং গ্রহনযোগ্য করে তুলতে চান তাহলে অবশ্যই আপনার ব্লগের Backlinks তৈরী করতে হবে। যার ব্লগের Backlinks যত বেশী তার ব্লগটি সার্চ ইঞ্জিনের কাছে তত বেশী গ্রহনযোগ্যতা পাবে।
  • Google My Business ব্যবহারঃ আপনার ব্লগটি Google My Business এর মাধ্যমে গুগল ম্যাপ এ যুক্ত করে নিয়ে ভেরিফাই করতে পারলে সার্চ ইঞ্জিন সহজে আপনার ব্লগের বা ব্যবসায়িক ব্লগের অবস্থান নির্ণয় করে সার্চ ইঞ্জিনের মাধ্যমে সহজে ভোক্তাদের কাছে পৌছে দেবে। এই বিষয়টি আপনার ব্লগকে সার্চ ইঞ্জিনের কাছে অধিক গুরুত্বপূর্ণ করে তুলবে। তাছাড়া Local ব্যবসা ও ব্লগিং এর ক্ষেত্রে এ বিষয়টি গুগল সার্চ এর জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখে।
  • বিবিধ বিষয়ঃ এ ছাড়াও একটি ব্লগকে সার্চ ইঞ্জিনের কাছে গুরুত্বপূর্ণ করে তুলার জন্য অনেক ধরনের এসইও টেকনিক রয়েছে, যার অধিকাংশ বিষয় ইতোপূর্বে আমাদের ব্লগে শেয়ার করেছি। সে জন্য এ বিষয়গুলি পুনরায় লিখে পাঠকদের মনে বিরক্তির কারণ হতে চাইছি না। আপনি যদি এসইও সম্পর্কে দক্ষতা অর্জন করতে চান তাহলে আমাদের পোষ্টগুলি পড়তে পারেন।
সর্বশেষঃ আমার সবগুলি আর্টিকেল টাইপের পোষ্টের ভীতরে শেষ কথা, সর্বশেষ ও সাহায্য জিজ্ঞাসা এ ধরনের একটি পেজ রাখি, যাতেকরে আমাদের পাঠকদের মনে খটকা থাকলে সেটি কমেন্টের মাধ্যমে দূর করতে পারে। আসলে আমরা চাই ব্লগের পাঠক ও আমাদের ব্লগের লেখকদের মধ্যে দূরত্ব কমে উভয়ের মধ্যে কমিউনিকেশন তৈরি হউক। অবশেষে সব পোষ্টের ন্যায় আবারও বলব আপনাদের মনে কোন প্রশ্ন থাকলে আমাদেরকে কমেন্ট করে জানাতে পারেন। আমরা আপনার প্রশ্নের যথাযথ সমাধান দেয়ার সর্বাত্মক চেষ্টা করব, ইনশাআল্লাহ। তবে তার আগে আরেকটি কথা বলে নিচ্ছি যে, আপনি যে বিষয় নিয়ে ব্লগিং করেন না কেন সেটা যেন হয় ইউনিক, ভালমানের ও অন্যের ব্লগ থেকে কপি করা নয় এমন বিষয়।
Subcribe to our all updates

and Share on
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট

6 টি মন্তব্য: Post Yours! Read Comment Policy ▼
লক্ষ্য করুনঃ
পোষ্টের সাথে সম্পৃক্ত নয় এমন কোন কমেন্ট করা যাবে না। কোন কারণ ব্যতীত আপনার ব্লগের লিংক শেয়ার করতে যাবেন না। সবসময় গঠনমূলক মন্তব্য প্রদানের চেষ্টা করবেন। আমরা সবার মতামত সমানভাবে মূল্যায়ন করি এবং যথাসময়ে প্রতি উত্তর দেয়ার চেষ্টা করি।

  1. খুব সুন্দর লিখেছেন ভাই

    উত্তরমুছুন
  2. ভাই আপনারা কি ব্লগ ডিজাইন করে দেন

    উত্তরমুছুন
    উত্তরগুলি
    1. হ্যাঁ করি, প্রয়োজনে যোগাযোগ করতে পারেন।

      মুছুন
  3. ভাই আমার এই (www.ourresult.com) সাইটের পোষ্ট দ্রুত ইনডেক্স হয়না কেন?

    উত্তরমুছুন
    উত্তরগুলি
    1. এ সংক্রান্তে অনেক পোষ্ট আমাদের ব্লগে রয়েছে। পোষ্টগুলি পড়লে বিস্তারিত জানতে পারবেন।

      মুছুন

 
Subscribe for all Updates

Subscribe Now

কপিরাইট © 2015- প্রযুক্তি ডট কম ™, সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত

Powered by: